বিজয় কণ্ঠ

সকলের কথা সমানভাবে

করোনা প্রতিরোধে সৌদির কঠোর নির্দেশনা

বিজয় কণ্ঠ ডেস্ক:
করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে আগামী ১০ দিনের জন্য সবধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সৌদি সরকার। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছে সৌদি প্রেস এজেন্সি।

তবে কোন কোন ক্ষেত্রে এই স্থগিতাদেশ ৩০ দিন পর্যন্ত রয়েছে। সময় আরও বাড়ানো হতে পারে।

বলা হয়েছে, ‘সৌদি আরবে যাবতীয় বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান তথা জনসমাগম আগামী ১০ দিনের জন্য বন্ধ করা হলো। তবে এই সিদ্ধান্ত সাময়িক, যা করোনা বিস্তার রোধে নেয়া হয়েছে। পরিস্থিতি অনুযায়ী এসব সিদ্ধান্ত ক্রমাগত পরিবর্তন করা হবে।’

আগামী ১০ দিন সৌদিতে যেসব কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে, তা হলো-

১. বিবাহ অনুষ্ঠান, কর্পোরেট সভা এবং এর মতো সমস্ত অনুষ্ঠান, বনভোজন অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে এসবের জন্য নিষেধাজ্ঞা ১০ দিন থেকে বেড়ে পরবর্তীতে ৩০ দিন হতে পারে।

২. আগামী ১০ দিনের জন্য সমস্ত বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান এবং ইভেন্টগুলোতে স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছে এবং এই স্থগিতাদেশ পরবর্তীতে বাড়ানো হতে পারে।

৩. সিনেমা হল, অভ্যন্তরীণ বিনোদন কেন্দ্র, স্বতন্ত্র অভ্যন্তরীণ গেমের (ইনডোর গেম) জায়গা বা রেস্তোরাঁ, শপিংমল, জিম এবং স্পোর্টস সেন্টারে জনসমাগম আগামী ৩০ দিনের জন্য বন্ধ করা হয়েছে। এসবের ক্ষেত্রেও স্থগিতাদেশ পরবর্তীতে বাড়তে পারে।

৪. রেস্তোরাঁ, ক্যাফে এবং এই জাতীয় খাওয়ার জায়গাগুলোতে ডাইনিং পরিষেবাদি বা সেখানে বসে খাওয়া আগামী ১০ দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। যা পরবর্তীতে আরও বাড়তে পারে। ক্যাফেতে বসে খাওয়া যাবে না। তবে এদের পার্সেল বা হোম ডেলিভারি সেবা চালু থাকবে স্বাভাবিক সময়ের মতো।

৫. অন্য সামাজিক অনুষ্ঠানে যেগুলোতে জনসমাগম হয় সেগুলোও আগামী ১০ দিনের জন্য নিষিদ্ধ।

এছাড়াও বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) এশিয়া, ইউরোপ ও আমেরিকা অঞ্চলের ২০টি নাগরিকদের ওপর প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সৌদি আরব। দেশগুলো হলো- আর্জেন্টিনা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, জার্মানি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইন্দোনেশিয়া, আয়ারল্যান্ড, ইতালি, পাকিস্তান, ব্রাজিল, পর্তুগাল, যুক্তরাজ্য, তুরস্ক, দক্ষিণ আফ্রিকা, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স, লেবানন, মিশর, ভারত এবং জাপান।

তবে ওই সব দেশে থাকা সৌদি নাগরিক, দূতাবাস কর্মকর্তা, চিকিৎসক এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা এই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়বে না।